ইংরেজি তে দুর্বল? গ্রামাটিকেল ভুলের ভয়ে ইংরেজি লিখতে ভয় পান? নিয়ে নিন মারাত্মক সমাধান সাথে ফ্রী ভয়ংকর টিপস!

মাতৃভাষা বাংলা। অথচ বাংলাই ঠিক মত বলতে, লিখতে পারি না। সে জায়গায় সেই দূরদেশের ইংরেজি না পারাটাই স্বাভাবিক। হোক সে আন্তর্জাতিক ভাষা। জন্মের পর থেকে বাংলায় কথা বলি, বাংলায় শুনি, বাংলায় লিখি। ইংরেজি অত ভাল পারবো কি করে? আজকাল তো ইংরেজরাই ঠিক মত ইংরেজি বলতে পারে না। আর আমরা তো… স্কুল কলেজে পড়েই কি ইংরেজি ভাল পারা যায় নাকি? আমাদের দেশের যে শিক্ষা ব্যবস্থা! মাস্টার্স পাশ করা একজন ছাত্র ও ২ লাইন ঠিক মত ইংরেজি বকতে পারে না। আর আজকাল কিছু ইংরেজ মাধ্যমে পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রি আছে, যারা এত মাত্রায় ইংরেজি বকে যে ঠিক মত বাংলা বকাটাই ভুলে যায়! দুঃখজনক হলেও সত্য আমাদের দেশে প্রায় ৩০ ভাগ শিক্ষিত লোক আছে যারা মোটামোটি ঠিকঠাক ইংরেজি বকতে পারবে। বাকি ৭০ ভাগ শিক্ষিত হলেও, ইংরেজির বেলায় কচু!

আমাদের কথা কি বলবো? শুধু আমরা না তো, বিশ্বের অনেক উন্নত দেশের লোকেরাও ভাল ইংরেজি বলতে পারে না। হাতে গোনা কিছু লোক আছে দুর্বার ইংরেজি বকে! ইংরেজি না পারা বা ইংরেজি তে দুর্বল হওয়াটা খুবি স্বাভাবিক। এতে মন খারাপ করা বা ভেঙ্গে পরার কোন কারন নেই।

ইংরেজি জানিনা! এখনতো বিয়ে করার জন্য বউ ও পাবো না!

এতক্ষণ কথাগুলো লিখার কারন হচ্ছে সান্তনা দেয়া। আসলে অনেকেই ইংরেজি না পারায় নিজেকে অনেক ছোট মনে করে, ভেঙ্গে পরে। তাদের মনে সান্তনা যোগানোর জন্যই এই বকবকানি। সান্তনা তো দিলাম, এবার সাহস দিবে কে? উপায় নেই, এটাও আমাকে করতে হবে।

আসলে ইংরেজি কে আমরা যতটা কঠিন মনে করি, ততটা কঠিন ইংরেজি না। ইংরেজিকে ভয় করলেই ইংরেজি কঠিন! আমি ছোট থেকেই ইংরেজি কে ভয় করি না। তাই কখনোই ইংরেজি আমার কাছে কঠিন মনে হয় নি, আর এখন পর্যন্ত ইংরেজিতে ভালোই আছি আল হামদুলিল্লাহ! আমি অনেক ভাল ইংরেজি পারি তা বলছি না! তবে অতটা খারাপ ও পারি না! ভুল আমারো হয়। হওয়াটাই স্বাভাবিক। আর সেই ছোট খাটো ভুল শুধরানোর উপায় নিয়েই আজকের টিউন। সাথে থাকবে সহজে ইংরেজি শেখার টিপস, ইংরেজির ভয়কে দূর করার টিপস, আরো অনেক কিছু! আর এসবই ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে। তাহলে চলুন নেমে পরি ইংরেজি শিকারে!

লুঙিটা শক্ত করে বেধে নিন! আর নেমে পড়ুন ইংরেজির সাথে লড়াইয়ে।

অনলাইনে ইংরেজি গ্রামার ভুল সংশোধন (মারাত্মক সমাধান)

হ্যা! আপনার লেখায় কি কি ইংরেজি গ্রামাটিকেল ভুল আছে সেগুলো ধরিয়ে দিতে আর সংশোধন করতে রয়েছে অনলাইন টুল। এসব টুল খুব নিখুঁত (খুব বেশি নিখুঁত না ? ) ভাবে আপনার গ্রামাটিকেল ভুল গুলো ধরিয়ে দিবে। তবে ভাইবেন না, এটা একজন মানুষের মত আপনার সব ভুল ধরিয়ে ঠিক করে দিবে! এটা সম্ভাব্য ভুল গুলো বলে দিবে, সেটা আসলেই ভুল কিনা আপনার বুঝে ঠিক করে নিতে হবে। ঠিক করার ক্ষেত্রে টুলটি সাজেশন দিবে। বুঝতেই পারছেন, আপনি এর সাহায্যে শুধু খুটিনাটি ইংরেজির ভুল গুলো ঠিক করতে পারবেন। আর ভুল ঠিক করতে করতেই অনেক কিছু শেখা হয়ে যাবে। তাহলে চলুন দেখে নেই টুল গুলোঃ

এটা আমার প্রিয় টুল। আমি সবসময় এটাই ব্যবহার করি। ব্যবহার করতে সহজ, মোটামোটি ভাল কাজ করে! এর সমন্ধে বিস্তারিত লিখলাম না, আশা করি কাজ করতে পারবেন।

টুল তো গেল, কিন্তু টুল এর উপর আর কতটুকু ভরসা করা যায়? নিজে তো কিছু শিখতে হবে নাকি? তাহলে চলুন ইংরেজি শেখার কিছু টিপস জেনে নেয়া যাক। এগুলো আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা আর ব্যক্তিগত মতামত।

ইংরেজির ভূত! তারাবেন যেভাবে

ইংরেজি-কে আসলে আমরা ঠিক এমনটাই ভয় পাই।

ইংরেজিতে দুর্বল হওয়া বা ইংরেজি না পারার প্রধান ও বিশেষ এবং আন্তর্জাতিক কারন হল ইংরেজির ভূত। এই ভূত এর ভয়েই অনেকে ইংরেজি পারে না, বা ইংরেজি তে দুর্বল হয়। আসলে এটা মনের ভয় ছাড়া কিছুই না! আমি আগেও বলেছি, ইংরেজি কে আমরা যতটা কঠিন মনে করি ইংরেজি বে-চা-রা ততটা নিষ্ঠুর কঠিন না। নিজ থেকেই নিজের মনকে বুঝিয়ে নিতে হবে। মন থেকে ইংরেজিকে ভালবাসতে হবে। তাহলে ধীরে ধীরে ইংরেজির ভূত আপনার থেকে দূর হয়ে যাবে। ইংরেজি থেকে যতই দূরে সরবেন, যতই ঘৃণা করবেন ইংরেজির ভূত ততই আপনাকে ছিরে ছিরে খাবে। এর চেয়ে ভাল বরং ইংরেজিকে ভালবাসুন, ইংরেজির কাছাকাছি থাকুন। ইংরেজির ভয় আপনা আপনি মন থেকে চলে যাবে।

ইংরেজি শেখার সেরা উপায়?

আমি জানি এটা নিয়ে দ্বিমত আছে। একেক জনের একেক পছন্দ বা মন্তব্য! কেও বলবে স্কুল কলেজের বই পরলেই ইংরেজি ভাল পারা যায় (বিশেষ করে স্কুল কলেজের শিক্ষকরা ? ) কেও বলবে ইংরেজি তে মাস্টার্স করলে ভাল ইংরেজি পারা যায়। কেও বলবে IELTS করতে, কেও বলবে বিদেশে উচ্চ শিক্ষা নিতে। কেও বলবে দরবেশ বাবার পড়াপানি খেতে। আসলে মানুষ ভেদে মতের ভিন্নতা।

তবে আমার মতে ইংরেজি শেখার সেরা উপায় হচ্ছে “নিজে শেখা” জানি এটা শুনে ইতি মদ্ধেই হাওকাও লেগে গেছে। নিজে কিভাবে শিখে? শিক্ষক ছাড়া ইংরেজি শেখা যায় নাকি? আরো কত কি… আসলে ব্যপার টা এইরকম- নিজে শেখা মানে নিজের ইচ্ছায় শেখা। শিক্ষক, বই, ইত্যাদির সাহায্য অবশ্যই নিবেন। তবে অবশ্যই স্বেচ্ছায় শেখার জন্য। কারো জোর জবরদস্তি বা কোন ‘শখের কড়াতে’ পরে নয়। ইংরেজি পরীক্ষায় পাস করার জন্য নয়, জীবনে পাস করার জন্য শিখুন। তাহলেই ইংরেজি শিখতে পারবেন।

ইংরেজি শেখার ভয়ংকর টিপস

আসলেই ইংরেজি শিখতে চান? স্বেচ্ছায় তো? নাকি স্যার, বাবা-মার জোরে? ঠিক আছে, স্বেচ্ছায় যেহেতু শিখতে চান তাহলে কিছু টিপস নিয়ে নেনঃ

  • নিয়মিত ইংরেজি পেচাল পারুন। ভুল হোক, আর ঠিক হোক। ফাও পেচাল পারতে থাকেন।
  • লজ্জা শরম সব সার্ফ এক্সেল দিয়ে ধুয়ে নেন। কারণ ইংরেজি শিখতে চাইলে লজ্জা শরম এর মাথা খেতে হয়। রোজা রমজানের দিনে মাথা খাওয়ার চেয়ে ধুয়ে ফেলা ভাল।
  • বন্ধু, বান্ধবী, বাবা-মা, শিক্ষক, আত্মীয়, অচেনা পথিক, ছোট ভাই, বড় ভাই সবার থেকে নির্দ্বিধায় সাহায্য নিন। যেকোনো সমস্যায় তাদের প্রশ্ন করুন। (অবশ্যই যে ইংরেজি তে ভাল তাকে প্রশ্ন করবেন, নয়তো অনন্ত জলিল হয়ে যেতে পারেন)
  • বন্ধুদের সাথে যত পারবেন ইংরেজিতে বকবকাবেন, কারণ এদের সাথে ভুল করলেও সমস্যা নেই। বন্ধু বান্ধবের কাছে সাত খুন মাফ! এছাড়া আমার জানামতে একমাত্র বন্ধুদের কাছেই আমাদের লজ্জা বলে কিছু নেই। সুতরাং…
  • নিয়মিত ইংরেজি পত্রিকা পরুন। অনলাইনে হোক আর অফলাইনে। কিচ্ছু বুঝেন নাহ? বুঝার দরকার নাই, মনে করেন কোন এক ২ বছরের বাচ্চা পেন্সিল দিয়া দাগাদাগি করছে। চোখ বুলায় জান। (একদিন না একদিন, একটা না একটা পরিচিত শব্দ চোখে পরবে আর সে থেকেই আগ্রহ বারবে)
  • নিয়মিত ইংরেজি চলচিত্র দেখুন। ইচ্ছা না থাকলেও দেখতে হবে, কিছু করার নাই। তবে সুবিধার্তে একটু বাছাই করে সুশীল চলচিত্র দেখতে পারেন।
  • বিভিন্ন ইংরেজি অনুষ্ঠান গুলো দেখুন। যেমনঃ Man VS Wild (আসলে, মানুষ বনাম পোকা), Worst case scenario, ইত্যাদি আরো মজাদার অনুষ্ঠান।
  • ইংরেজ বক্তাদের কথা শুনুন। কিচ্ছু বুঝেন নাহ? সমস্যা নাই, শুনতে থাকেন। মনে করেন ২ বছরের বাচ্চা হাওমাও কইরা কথা বলা শিখতেছে। শুনতে শুনতে নিজেই বোঝা শুরু করবেন। যেমন একজন মা তার সন্তানের আধো আধো কথাই পুরো বুঝতে পারেন অন্য কেও বুঝতে না পারলেও।
  • ইংরেজিতে যখন একটি বক্তব্য শুনবেন সাথে সাথেই সেটা মনে মনে আওড়াতে থাকুন। এবং ভাবুন এটা কেমন বক্তব্য? কোন সময়ে এটা প্রয়োগ করা যায়? ওইরকম একটা সুযোগ বুঝে বক্তব্য টা ছুঁড়ে মারুন। একটু হিট বক্তব্য হলে নিশ্চিত আপনার আশে পাশের লোকজন (সম্ভবত বন্ধু বান্ধব) আপনার দিকে হেলিকপ্টার এর মত তাকাবে! মানে কয়েক মিনিটের জন্য অন্তত আপনি হিরো ?
  • টুকটাক বই, ডিকশনারি পড়াশোনা করুন। প্রতিদিন একটু একটু ইংরেজি শব্দ, বাক্য শিখতে থাকুন। আর যাই শিখবেন সেটা পরদিনই যে করেই হোক বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করবেন।

মোশাররফ করিম এর একটা নাটক আছে, ঠিক মনে পড়তেছে না। সম্ভবত হাউজফুল এ মোশাররফ করিম ইংরেজি শিখতে চায়। যারা নাটক টা দেখেছেন, তারা হয়তো বুঝতে পারছেন ? অনেকটা তার মতই বেহায়া হতে হবে ইংরেজি শিখতে হলে। যদিও নাটকে তার চরিত্র কে অনেকটা জোকার হিসেবে দেখিয়েছে, তবে ইংরেজি শেখার ক্ষেত্রে তার আচরনই ঠিক ?

আরো অনেক টিপস হয়তো আছে, কিন্তু ডুব দিয়ে আছে, সাতার কাটতেছে নাহ :/ দেখি ভেসে উঠলে জানিয়ে দিবো। আর আপনার জানা কোন টিপস থাকলে কমেন্ট এর ঘর আপনার জন্য খালি পরে আছে, হুটহাট টাইপ করে ধুপধাপ পোস্ট করে দিন।

আপনার ইংরেজি শেখার অভিযানে শুভকামনা! (y)

লিখাটি মজাদার করার জন্য অনেক ধরনের ভাষা, অনেক উদাহরণ, অনেকের নাম ইত্যাদি ব্যবহার করেছি। আশা করি কেও ব্যক্তিগত ভাবে নিবেন না। অজান্তে কাওকে আঘাত দিয়ে থাকলে দুঃখিত।